সুজানগরে মা ইলিশ রক্ষায় সচেতনতা সভা

সুজানগরে মা ইলিশ রক্ষায় সচেতনতা সভা

আগামী ১৪ অক্টোবর হতে ৪ নভেম্বর এই ২২ দিন ইলিশ ধরা নিষিদ্ধ করেছে সরকার। এ সময়ে ইলিশের আহরণ, পরিবহন, মজুত, বাজারজাতকরণ, ক্রয়-বিক্রয় ও বিনিময় নিষিদ্ধ থাকবে, এ আইন অমান্য করলে জেল অথবা জরিমানা এমনকি উভয় দন্ডের বিধান রয়েছে।

এ উপলক্ষে সোমবার (১২ অক্টোবর) প্রজনন মৌসুমে পদ্মা নদীর মা ইলিশ রক্ষা ও ইলিশ সংরক্ষণে নাজিরগঞ্জের মৎস্য ব্যবসায়ী ও জেলেদের সঙ্গে এক সচেতনতামূলক সভা অনুষ্ঠিত হয়। সুজানগর উপজেলা মৎস্য দপ্তরের আয়োজনে অনুষ্ঠিত সচেতনতামূলক সভায় বক্তব্য রাখেন জেলা মৎস্য কর্মকর্তা আব্দুর রউফ, উপজেলা নির্বাহী অফিসার রওশন আলী, পাবনা সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (সুজানগর সার্কেল) ফরহাদ হোসেন, থানা অফিসার ইনচার্জ বদরুদ্দোজা, উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা (অতিরিক্ত দায়িত্ব) সাইফুল ইসলাম ও নাজিরগঞ্জ ইউপি চেয়ারম্যান মশিউর রহমান খান প্রমুখ।

সভায় বক্তরা বলেন যদি প্রজনন মৌসুমে মা ইলিশ ধরা বন্ধ করা যায়,তাহলে আগামী মৌসুমে আরও বেশি পরিমাণে ইলিশ পাওয়া যাবে। এ জন্য সবাইকে সচেতন এবং সজাগ থাকতে হবে। আর প্রজনন মৌসুমে ইলিশ ধরা বন্ধে সরকারী নিষেধাজ্ঞা মেনে চললে ভবিষ্যতে ইলিশ বিক্রি করে জেলেরা যেমন লাভবান হবেন,তেমনি বাঙ্গালির রসনাবিলাস সম্ভব হবে বলেও জানান তারা।

error: অতি চালাকের গলায় দড়ি !!