সুজানগরে শিশু ধর্ষণ চেষ্টাকারীর গ্রেপ্তার দাবিতে মানববন্ধন

সুজানগরে শিশু ধর্ষণ চেষ্টাকারীর গ্রেপ্তার দাবিতে মানববন্ধন

সুজানগরে ৪ বছরের এক শিশুকে ধর্ষণ চেষ্টার প্রতিবাদ ও মামলার একমাত্র আসামি রানু শেখ (৫০) কে দ্রুত গ্রেফতারের দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার (০১ অক্টোবর) বেলা ১১টায় সুজানগর প্রেসক্লাবের সামনে বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদ সুজানগর উপজেলা শাখার আয়োজনে এক ঘন্টাব্যাপি এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয় ।

মানববন্ধনে সুজানগর উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মোছাঃ মর্জিনা খাতুন, বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদ পাবনা জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক আইনুল হক, সহ সভাপতি আলহাজ্ব শেখ, যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক হাসিবুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক ওয়ালিউর রহমান ওলি, যুগ্ন সাংগঠনিক সম্পাদক ও সুজানগর উপজেলার আহ্বায়ক মেহেদী হাসান আকাশ, দপ্তর সম্পাদক ইয়াছিন আরাফাত বাবুল, বেড়া উপজেলা অর্থ সচিব সারাবানা তহুরা উর্মি, সদস্য সচিব আলিফ হোসেন, যুগ্ন সম্পাদক রাকিব সফর, যুব অধিকার পরিষদের প্রতিনিধি সুলতান মাহমুদ, আলাউদ্দিন, জেলার বিভিন্ন উপজেলার নেতাকর্মীরা সহ বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষ অংশ নেন।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন এ ঘটনায় মামলা করার ৩ দিন পেরিয়ে গেলেও আসামী রানু শেখ এখনো গ্রেফতার হয়নি। এবং ধর্ষণ চেষ্টাকারী রানু শেখ প্রভাবশালী হওয়ায় টাকার জোরে এখনো পুলিশের অধরা। সুজানগর থানা অফিসার ইনচার্জ বদরুদ্দোজা জানান মামলা হওয়ার পর থেকেই আসামি রানু শেখ কে গ্রেফতারের জন্য অভিযান অব্যাহত রয়েছে। আশা করছি শিগগিরই তাকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হব। উল্লেখ্য গত ২৫ সেপ্টেম্বর সুজানগর উপজেলার সাতবাড়িয়া ইউনিয়নের গুপিনপুর গ্রামের ৪ বছরের এক শিশুকে জোড়পূর্বক ধর্ষণ চেষ্টা চালায় স্থানীয় এলাকার রানু শেখ (৫০)।

এ সময় শিশুটির চিৎকারে স্বজনেরা ছুটে এলে কৌশলে পালিয়ে যায় রানু শেখ। পরে শিশুটিকে উদ্ধার করে হাসপাতালে চিকিৎসা করানোর পর শিশুটির মা গত ২৮ সেপ্টেম্বর বাদী হয়ে সুজানগর থানায় একটি ধর্ষণ চেষ্টা মামলা দায়ের করে। কিন্তু মামলার ৩ দিন পার হলেও ধর্ষণ চেষ্টাকারী রানু শেখকে এখনো গ্রেফতার করতে পারেনি থানা পুলিশ।

সাতবাড়ীয়া ইউপি চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা এস এম সামছুল আলম জানান অভিযুক্ত শিশু ধর্ষণ চেষ্টাকারী এখনো গ্রেফতার না এলাকাবাসীর মধ্যে চরম ক্ষোভ বিরাজ করছে। তারা এ ঘটনার আসামী রানু শেখকে দ্রুত গ্রেফতার করে আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের নিকট।

error: অতি চালাকের গলায় দড়ি !!