সুজানগরে শিশু উদ্ধারে গিয়ে ছুরিকাঘাতে ২ পুলিশ জখম

সুজানগরে শিশু উদ্ধারে গিয়ে ছুরিকাঘাতে ২ পুলিশ জখম, আটক ১

সুজানগরে সিভিল পোশাকে (সার্চ ওয়ারেন্টে) বাচ্চা উদ্ধার করতে গিয়ে ছুরিকাঘাতে থানার এক এএসআই এবং এক কনস্টেবল জখম হয়েছেন। গত বুধবার সন্ধ্যার দিকে উপজেলার মানিকহাট ইউনিয়নের খয়রান গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আহতরা হলেন সুজানগর থানার এএসআই শফিকুল ইসলাম ও কনষ্টেবল মামুন হোসেন। আহত দুই পুলিশ সদস্যদের মধ্যে কনষ্টেবল মামুনকে সুজানগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স্রে ভর্তি করা হয়েছে এবং এএসআই শফিকুল ইসলামকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

এদিকে বুধবার রাতেই আহত পুলিশ সদস্যদের দেখতে সুজানগর হাসপাতালে যান পাবনা পুলিশ সুপার মহিবুল ইসলাম খান। জানাযায় পাবনা সদর উপজেলার চরতারাপুর ইউনিয়নের আড়িয়া গোহাইলবাড়ী গ্রামের হাসান আলীর ৪ বছরের মেয়েকে রেখে গত প্রায় ৬ মাস পূর্বে স্ত্রী আত্মহত্যা করেন। এরপর হাসান আলীর শশুরবাড়ীর লোকজন তার মেয়ে মার্জিয়াকে তারাবাড়ীয়া গ্রামে নিয়ে যান।

এরপর তারাবাড়ীয়া গ্রামের শাহাদত আলীর ভাগ্নি মার্জিয়াকে সুজানগর উপজেলার খয়রান গ্রামে আরশেদ আলী মল্লিকের ছেলে নি:সন্তান সাইফুল ইসলাম মল্লিকের নিকট দত্তক দেন। এবং গত দুইমাস ধরে সাইফুল ইসলাম মার্জিয়াকে লালন পালন করছিলেন। এরই মধ্যে নিজের মেয়ে মার্জিয়াকে ফিরে পেতে আদালতের শরনাপন্ন হন হাসান আলী। এক পর্যায়ে আদালতের রায়ের পর তিনি সুজানগর থানা পুলিশের সরনাপন্ন হলে পুলিশ দত্তক গ্রহনকারী খয়রান গ্রামের সাইফুল মল্লিকের বাড়িতে যায়। এ সময় দত্তকগ্রহনকারী সাইফুল ইসলাম মেয়েটির মামা শাহদত হোসেনকে খবর দিলে তিনি সেখানে উপস্থিত হয়ে বাকবিতন্ডার এক পর্যায়ে পুলিশ সদস্যদের ছুরিকাঘাত করেন।

সুজানগরে শিশু উদ্ধারে গিয়ে ছুরিকাঘাতে ২ পুলিশ জখম, আটক ১ | সুজানগর.কম

স্থানীয় এলাকাবাসী জানায় সিভিল পোষাকে পুলিশ সদস্যরা শিশু উদ্ধার করতে এলে এ ঘটনা ঘটে। সুজানগর থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মিজানুর রহমান জানান, শিশু উদ্ধার করতে থানার চার পুলিশ সদস্য ঘটনাস্থলে গিয়েছিল এবং সবার শরীরেই পুলিশের পোষাক ছিল। আর এ ঘটনার পরপরই পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে একটি ছুরি সহ অভিযুক্ত শাহাদত হোসেনকে আটক করেছে।

আটককৃত শাহাদত পাবনা সদর উপজেলার তারাবাড়িয়া গ্রামের জালাল উদ্দিন খানের ছেলে। তার বিরুদ্ধে সুজানগরে সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে জড়িত থাকা ও মাদক বেচাকেনা সহ বহু অভিযোগ রয়েছে ।

error: অতি চালাকের গলায় দড়ি !!