‘সুজানগরের বস’ কোরবানীর পশুর মাঠ কাঁপাতে এবারে প্রস্তত

‘সুজানগরের বস’ কোরবানীর পশুর মাঠ কাঁপাতে এবারে প্রস্তত

কলো মিচমিচে গায়ের রঙ, উচ্চতা ৬ ফুট আর লম্বা ৯ ফুট। তিন বছর ধরে তিনি খেয়েছেন, নিজেকে তৈরী করেছেন। এক্ষেত্রে ব্যবহার করা হয়েছে সম্পূর্ন দেশীয় পদ্ধতি। ইতিমধ্যে নজর কাড়তে শুরু করেছেন। সব প্রস্তুতি শেষে কোরবানীর পশুর মাঠ কাঁপাতে আসছেন তিনি। তার নাম ‘সুজানগরের বস’। নাম শুনে আশ্চর্য হলেও এটাই সত্য। সুজানগরের বস হলো একটি ষাঁড় গরুর নাম।

পাবনার সুজানগর পৌরসভার ৪ নং ওয়ার্ডের চরভবানীপুর (বাগানপাড়া) গ্রামের আনতাই শেখ তিন বছর ধরে লালন পালন করে তৈরী করেছেন সুজানগরের বসকে। যার ওজন দাবি করা হচ্ছে ২৫ মণ। দাম হাঁকা হয়েছে ১২ লাখ টাকা।

আলাপকালে আনতাই শেখ জানান, তিন বছর আগে স্থানীয় একটি হাট থেকে ৯০ হাজার টাকা দিয়ে একটি কালো রংয়ের বাছুর কিনে লালন-পালন শুরু করেন তিনি। স্বাস্থ্যকর পরিবেশে রেখে সম্পূর্ণ প্রাকৃতিক খাবার খাইয়ে লালন-পালন করা ঐ বাছুর এক বছর যেতে না যেতেই চোখে পড়ার মতো একটি ষাঁড়ে পরিণত হয়। এরপর তিনি মনে-প্রাণে ষাঁড়টিকে আশপাশের জেলার মধ্যে সবচেয়ে বড় এবং দৃষ্টিনন্দন ষাঁড়ে পরিণত করার স্বপ্ন দেখেন। নাম রেখেছেন ‘সুজানগরের বস’।

এক পর্যায়ে তিনি উপজেলা প্রাণিসম্পদ অফিসের পরামর্শক্রমে ষাঁড়টিকে সময়োপযোগী ওষুধপত্র খাওয়ানোর পাশাপাশি বিশেষ করে সম্পূর্ণ প্রাকৃতিক খাবার খাইয়ে লালন-পালন করতে থাকেন। অবশ্য এজন্য তিনি প্রতি বছর বাড়ির পাশের জমিতে কয়েক বিঘা জমিতে ভুট্টা, জব এবং নেপিয়ার জাতের ঘাস আবাদ করেন। তাছাড়া কালাইয়ের ভুসি এবং ধানের খড়সহ অন্যান্য উপাদেয় খাবারতো আছেই।

আনতাই শেখের ছেলে সাগর বলেন, সবমিলিয়ে ষাঁড়টিকে প্রতি মাসে ২০ হাজার টাকার খাবার খাইয়েছেন তিনি। এভাবে দীর্ঘ ৩ বছর লালন-পালন করার পর ৯ ফুট লম্বা এবং ৬ ফুট উচ্চতার সুজানগর বসের বর্তমান ওজন হয়েছে প্রায় ২৫ মণ। পবিত্র কোরবানীর ঈদকে সামনে রেখে ষাঁড়টির দাম চাচ্ছি ১২ লাখ টাকা।

উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ জামাল উদ্দিন জানান, কোন প্রকার কৃত্রিম খাবার না খেয়ে সম্পূর্ণ প্রাকৃতিক খাবার খেয়ে বড় হওয়া ঐ ষাঁড়ের গুরুত্ব অনেক বেশি। আশা করি খামারী আনতাই শেখ ভাল দাম পাবেন।

সুজানগর পৌরসভার সাবেক কাউন্সিলর মনসুর আলী মন্টু ও স্থানীয় এলাকার বাসিন্দা রতন জানান , প্রতিদিন উৎসুক নারী-পুরুষ সুজানগরের বস নামের ষাঁড়টি একনজর দেখতে মামুনের বাড়িতে ভীড় করছেন। কেউ তার সাথে সেলফি উঠছেন, কেউ তাকে ছুঁয়ে দেখছেন।

error: অতি চালাকের গলায় দড়ি !!