মেয়র আব্দুল ওহাবের সমর্থনে সুজানগরে বিশাল মোটরসাইকেল শোডাউন

মেয়র আব্দুল ওহাবের সমর্থনে সুজানগরে বিশাল মোটরসাইকেল শোডাউন

আসন্ন সুজানগর পৌর নির্বাচন উপলক্ষে বর্তমান পৌর মেয়র ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ্ব মোঃ আব্দুল ওহাবের সমর্থনে এক বিশাল মোটরসাইকেল শোডাউন অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার সকালে দলীয় নেতাকর্মী সহ পৌরসভার বিভিন্ন এলাকার কর্মী সমর্থকেরা ৩ শতাধিক মোটরসাইকেল নিয়ে এ শোডাউন বের করে।

উপজেলা পরিষদ চত্বর, পৌর বাজার, থানা চত্বর হয়ে পৌর শহরের ৯টি ওয়ার্ডের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে শোডাউনটি পৌর কার্যালয়ের সামনে গিয়ে শেষ হয়। এ সময় পৌর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ মিলন ও উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক সাইদুর রহমান ও উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক, শেখ তুষার সহ কর্মী সমর্থকেরা পৌরসভার উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে আওয়ামীলীগ সভানেত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা পূনরায় আলহাজ্ব আব্দুল ওহাবকেই দলীয় মনোনয়ন দিবেন বলে তারা আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

উল্লেখ্য রাজনৈতিক জিবনে বর্তমান পৌর মেয়র ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ্ব মোঃ আব্দুল ওহাব ১৯৮৪ সালে ছাত্রলীগের দপ্তর সম্পাদক, ১৯৮৭ সালে উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি, ১৯৮৮ সালে সুজানগর উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক, ১৯৯৪ সালে আহমেদ তফিজ উদ্দিন সভাপতি ও আবুল কাশেম যে কমিটির সেক্রেটারী হন সেই কমিটির তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক নির্বাচিত হন,পরবর্তী আব্দল মজিদ মন্টু প্রচার সম্পাদক থেকে পদত্যাগ করলে সেই কমিটিরই ভারপ্রাপ্ত প্রচার সম্পাদক হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন আব্দুল ওহাব।

পরবর্তীতে ২০০৪ সাল থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এবং বর্তমানে সফলতার সাথে সুজানগর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও পৌর মেয়র হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন তিনি। জাতীয় পার্টি দেশের রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় থাকাকালীন এবং বিএনপি জামায়াত জোট সরকার ক্ষমতায় থাকাকালীন বিভিন্ন সময়ে মিথ্যা রাজনৈতিক হয়রানিমূলক বিভিন্ন মামলায় আব্দুল ওহাবকে সর্বমোট ৭৩৩ দিন অর্থাৎ ২ বছর ৩ দিন কারাগারে বন্দি থাকতে হয়।

আর শুধুমাত্র ২০০১ সালেই তার বিরুদ্ধে ২৭টি মামলা দায়ের করে বিএনপি জামায়াত জোট সরকার।এছাড়া ওয়ান-ইলেভেনের সময় দলীয় সভানেত্রী শেখ হাসিনার কারামুক্তির দাবীতে রাজপথে করেছি আন্দোলন সংগ্রাম বলেও জানান তিনি। আব্দুল ওহাব আরো বলেন করোনাকালে ব্যক্তি উদ্যোগে কর্মহীন মানুষদের মাঝে ত্রাণ সহায়তা দেবার পাশাপাশি স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ করেছি।

সুজানগর পৌরসভার মেয়র নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে পৌরসভার উন্নয়নে নিঃস্বার্থ ভাবে কাজ করে পৌরসভার রাস্তাঘাট, ড্রেন, কালভার্ট সহ ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের ব্যাপক উন্নয়ন সাধন করেছি।তাই আওয়ামীলীগ থেকে এবারেও দলীয় মনোনয়ন পেলে সুজানগর পৌরসভার মেয়র পদটি দলীয় সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে উপহার দেব। জননেত্রীর স্বপ্ন বাস্তবায়নের জন্য কাজ করব বলে জানান আব্দুল ওহাব।

error: অতি চালাকের গলায় দড়ি !!