মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিগাঁথা ১৪ ডিসেম্বর সুজানগর মুক্ত দিবস

মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিগাঁথা ১৪ ডিসেম্বর সুজানগর মুক্ত দিবস

ঐতিহাসিক ১৪ ডিসেম্বর সুজানগর মুক্ত দিবস। মহান মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিগাঁথা এই দিনে সুজানগর উপজেলা পাক হানাদার মুক্ত হয়েছিলো, উড়েছিলো বিজয়ের পতাকা। পাক হানাদার মুক্ত হয়ে সমগ্র এলাকার মানুষের মুখে আনন্দের হাসি ফুটে উঠেছিলো। এই দিনে সুজানগরের মানুষ খুঁজে পেয়েছিল দীর্ঘদিনের যুদ্ধ বিজয়ের আনন্দ ।

প্রতি বছর এ দিনটিকে বিভিন্ন কর্মসূচি পালনের মধ্যে দিয়ে স্মরণ করে সুজানগরবাসী। স্থানীয় বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ আব্দুস সামাদ জানান ১১ডিসেম্বর বীর মুক্তিযোদ্ধা ইকবাল হোসেন, জহুরুল ইসলাম বিশু, মকবুল হোসেন সন্টু, শামছুল ইসলাম, আব্দুর রাজ্জাক, হাবিবুর রহমান হাবিব এবং শহীদ মোস্তফা কামাল দুলাল, শহীদ নূরুল ইসলাম ও শহীদ আবু বকর সহ আমরা প্রায় তিন থেকে চার’শ মুক্তিযোদ্ধা পাঁচ ভাগে বিভক্ত হয়ে থানা আক্রমন করি। আর ১৯৭১ সালের ১১ থেকে ১৩ ডিসেম্বর তিন দিনে পাক হানাদার বাহিনীর সাথে যুদ্ধে বীর মুক্তিযোদ্ধা মোস্তফা কামাল দুলাল, নূরুল ইসলাম, আবু বকর পাক হানাদার বাহিনীদের হাতে শাহাদত বরণ করেন।

তিনদিন ব্যাপি যুদ্ধ পরিচালনার পর ১৪ ডিসেম্বর ১৯৭১সাল ভোর পৌনে ৭টার দিকে পাকিস্তানী হনাদার বাহিনী পালিয়ে যায়। এসময় আমাদের হাতে ৫ পাকিস্তানি হানাদার নিহত হয় এবং জনতার হাতে ধরা পড়ে বিচ্ছিন্ন ভাবে আরো প্রায় ১৫-১৬ জন মারা যায়। আর এভাবেই সুজানগর উপজেলা পাক হানাদার মুক্ত হয়ে উড়েছিল বিজয়ের পতাকা। এদিকে দিনটিকে স্মরণ করে বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহন করা হয়েছে বলে জানান উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ রওশন আলী।

error: অতি চালাকের গলায় দড়ি !!