বরেণ্য রাজনীতিবিদ আবুল কাশেমের চতুর্থ মৃত্যুবার্ষিকী আজ

বরেণ্য রাজনীতিবিদ আবুল কাশেমের চতুর্থ মৃত্যুবার্ষিকী আজ

সুজানগর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান বরেণ্য রাজনীতিবিদ আবুল কাশেমের চতুর্থ মৃত্যুবার্ষিকী আজ (বৃহস্পতিবার) ১ অক্টোবর। মরহুম আবুল কাশেম এর কনিষ্ঠ পুত্র সুজানগর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও সুজানগর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীনুজ্জামান শাহীন জানান মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে পরিবারের পক্ষ থেকে এদিন মরহুমের কবর জিয়ারত, স্থানীয় বিভিন্ন এতিমখানার শিক্ষার্থীদের মধ্যে খাবার বিতরণ, বিভিন্ন মসজিদে দোয়া ও মিলাদ মাহফিল এবং বিনামূল্যে নিম্ন আয়ের মানুষদের রক্তের গ্রুপ নির্ণয় কর্মসূচি গ্রহন করা হয়েছে ।

উল্লেখ্য ২০১৬ সালের এই দিনে পরিবারপরিজন, আত্মীয়স্বজন, বন্ধুবান্ধব সর্বপরি রাজনৈতিক সহযোদ্ধাদের কাঁদিয়ে আবুল কাশেম নাফেরার দেশে চলে যান। মরহুম আবুল কাশেম জীবিত থাকাকালীন ১৯৬৩ সাল থেকে ১৯৭৩ সাল পর্যন্ত স্থানীয় একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক হিসেবে কর্মরত ছিলেন। এর পর তিনি বঙ্গবন্ধুর আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে সক্রিয়ভাবে আওয়ামী রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত হন। এবং তিনি আওয়ামীলীগের রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত হওয়ার কিছু দিনের মধ্যে সাংগঠনিক যোগ্যতার কারণে প্রথমে উপজেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক এবং পরবর্তীতে ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব প্রাপ্ত হন।

এর পর ১৯৭৪ সাল থেকে ২০০৪ সাল পর্যন্ত দলের সাধারণ সম্পাদক এবং ২০০৪ সাল থেকে মৃত্যুর আগ মুহূর্ত পর্যন্ত দলের সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক জীবনে তিনি দুইবার সুজানগর ইউপি চেয়ারম্যান এবং ২০১৪ সালের উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। এছাড়া তিনি দীর্ঘদিন সুজানগর পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন।

এছাড়া সফল এবং আদর্শ রাজনীতিক হিসাবে সকলের নিকট পরিচিত ছিলেন প্রয়াত আবুল কাশেম। এদিকে সুজানগর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান বরেণ্য রাজনীতিবিদ আবুল কাশেমের ৪র্থ মৃত্যু বার্ষিকীতে মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনায় তার পরিবার সবার কাছে দোয়া চেয়েছেন।

error: অতি চালাকের গলায় দড়ি !!