বঙ্গমাতা ছিলেন বাঙালির মুক্তি সংগ্রামের অন্যতম এক স্মরণীয় অনুপ্রেরণাদাত্রী

বঙ্গমাতা ছিলেন বাঙালির মুক্তি সংগ্রামের অন্যতম এক স্মরণীয় অনুপ্রেরণাদাত্রী -শাহীনুজ্জামান

স্বাধীনতার মহানায়ক জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সহধর্মিণী মহীয়সী নারী বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব কেবল একজন সাবেক রাষ্ট্রনায়কের সহধর্মিণীই নন, তিনি ছিলেন বাঙালির মুক্তি সংগ্রামের অন্যতম এক স্মরণীয় অনুপ্রেরণা দাত্রী বলে উল্লেখ করেছেন সুজানগর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীনুজ্জামান শাহীন।

শনিবার (০৮ আগস্ট) উপজেলা নির্বাহী অফিসার রওশন আলীর সভাপতিত্বে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের ৯০তম জন্মবার্ষিকীতে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত অসচ্ছল নারীদের মাঝে সেলাই মেশিন বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপজেলা চেয়ারম্যান আরো জানান বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব মনেপ্রাণে একজন আদর্শ বাঙালি নারী ছিলেন। জীবনে অনেক ঝুঁকিপূর্ণ কাজ করেছেন, এজন্য অনেক কষ্ট-দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছে তাকে।

বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক জীবনের প্রতিটি বাঁকে,সঙ্কটে পরামর্শ দিয়ে পাশে থেকেছেন। আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীদের যে কোন বিপদে-আপদে ত্রাতার মতো পাশে থেকেছেন সবসময়। বঙ্গবন্ধু যে বিশ্ব বরেণ্য রাষ্ট্রনায়কে পরিণত হয়েছিলেন, তার পেছনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিলেন মহিয়সী এই নারী বলেও জানান তিনি।

এবারে “বঙ্গমাতা ত্যাগ ও সুন্দরের সাহসী প্রতীক” এই প্রতিপাদ্য বিষয় কে সামনে রেখে সুজানগর উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তার কার্যালয়ের আয়োজনে অনুষ্ঠানে সুজানগর প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক এম এ আলিম রিপন, উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তার কার্যালয়ের স্টাফ শাহনাজ বেগম ও যুবলীগ নেতা হারুনর-রশিদ বাদশা প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
উল্লেখ্য ১৯৩০ সালের ০৮ আগস্ট গোপালগঞ্জ জেলার টুঙ্গিপাড়া গ্রামে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জন্মগ্রহণ করেন।

১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট কালরাতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুরের সঙ্গে তিনিও মির্মমভাবে প্রাণ হারান। বাংলাদেশের ইতিহাসের অসীম সাহসী নারী বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের জন্ম আগস্টে এবং আগস্টেই তাঁর রক্তাক্ত বিদায়ের ঘটনা ঘটে ।

error: অতি চালাকের গলায় দড়ি !!